child-rape-20190120191147

রাজৈর, বাংলারশিক্ষা:
রাজৈর উপজেলার টেকেরহাটে এক মহিলা মাদ্রাসার ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ম্যানেজার মো. শাহাদাত হোসেন (২৫)-কে আটক করেছে পুলিশ। শাহাদাত ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার সিংগারিয়া মুনসারাবাদ গ্রামের মৃত আজিজুল হক মুন্সীর ছেলে।

নির্যাতিতা ছাত্রী জানায়, সোমবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে মাদ্রাসা কমপ্লেক্সের ম্যানেজার মো. শাহাদাত হোসেন (২৫) স্যার মাদ্রাসার রান্না-ঘর ঝাড়– দেয়ার কথা বলে দুই ছাত্রীকে ডেকে নেন। পরে নির্যাতিতার সহপাঠিকে অন্যত্র পাঠিয়ে দিয়ে তাকে রান্না ঘরের ভেতরে নিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়। এসময় সে চিৎকার দেওয়ার চেষ্টা করলে তার মুখ চেপে ধরে এবং জোরপূর্বক যৌন নির্যাতন করে।

ছাত্রীর মা কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমার মেয়ের উপর যে এমন অত্যাচার করেছে আমি তার উপযুক্ত বিচার চাই ।

ঘটনার কথা জানতে পেরে মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে অফিসের প্রশিক্ষক মোমেনা আক্তার মাদ্রাসা থেকে ছাত্রীকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এ সময় কৌশলে অভিযুক্ত ম্যানেজার শাহাদাত পালিয়ে যাবার সময় রাজৈর থানা পুলিশের এসআই কাওছার ধাওয়া করে তাকে পাশর্^বর্তীর মুকসুদপুর উপজেলার জলিরপাড় বাসষ্ট্যান্ড থেকে আটক করে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মাদ্রাসার ম্যানেজার শাহাদাত হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি ওই ছাত্রীকে বিবাহ করতে রাজি আছি।

মোমেনা আক্তার বাদী হয়ে শাহাদাতকে প্রধান আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন এবং ছাত্রীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাজৈর থানার ওসি মো. শাজাহান জানান, এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ শাহাদাত নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

উপজেলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহানা নাসরিন জানান, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।