Wahab-Sir-Prize

মনজুর হোসেন, বাংলারশিক্ষা:
শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ঢাকার দুটি সংগঠনের পক্ষ থেকে বিজয় দিবস সম্মাননা পুরস্কার ও হিউম্যান রাইটস্ পিস এ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন রাজৈর উপজেলার শাখারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ওহাব আলী হাওলাদার।

শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ঢাকার জার্নালিস্ট সোসাইটি ফর হিউম্যান রাইটস্ এর পক্ষ থেকে হিউম্যান রাইটস পিস এ্যাওয়ার্ড সংগঠনের পক্ষ থেকে বিজয় দিবস সম্মাননা পুরস্কার ২০১৯ প্রদান করা হয়। ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকার একটি হোটেলে জার্নালিস্ট সোসাইটি ফর হিউম্যান রাইটস্ এর পক্ষ থেকে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মো. ওহাব আলী হাওলাদারকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার প্রদান করেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের বিচারপতি খাদেমুল ইসলাম চৌধুরী। অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, এম.পি। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মো. মনির হোসেন, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শাহ আলম চুন্নু, মহাসচিব এম.এইচ আরমান চৌধুরী প্রমুখ।

অপরদিকে, ২০১৯ সালের ২৮ ডিসেম্বর স্বাধীনতা সংসদ এর পক্ষ থেকে ঢাকার এক হোটেলে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয় দিবস সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয় শিক্ষক মো. ওহাব আলী হাওলাদারকে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের সাবেক বিচারপতি ফয়সাল মাহমুদ ফয়েজী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট আদিবা আনজুম মিতা, এমপি, সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটির উপচার্য অধ্যাপক ড. আ.ন.ম মেশকাত উদ্দীন, অর্থ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব পীরজাদা শহীদুল হারুন, সংগঠনের নির্বাহী চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ প্রিন্স, মহাসচিব সাহেদ আহাম্মদ প্রমুখ।

জানা যায়, মো. ওহাব আলী হাওলাদার মাদারীপুর সদর উপজেলার মস্তফাপুর ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামে ১৯৬১ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। ছোটবেলা থেকেই তিনি লেখাপড়ায় খুব মেধাবী ছিলেন। ১৯৬৯ সালে পঞ্চম শ্রেণিতে তিনি বৃত্তি লাভ করেন। পড়াশোনা শেষ করে ইউনাইটেড ইসলামিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং ঢাকার মিরপুর সরকারি বাংলা কলেজ থেকে বিএ পাশ করেন। কালকিনি উপজেলার মিয়ারহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজী শিক্ষক হিসেবে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন। সেখান থেকে চরগোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। ২০১১ সালে তিনি রাজৈর উপজেলার শাখারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকে তিনি লেখাপড়ার মান বৃদ্ধি করেন ও শিক্ষার চমৎকার পরিবেশ তৈরী করেন। তার নেতৃত্বে বিদ্যালয়টি রাজৈর উপজেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়ে পরিণত হয়। তিনবার এসএসসি ও জেএসসি পরীক্ষায় রাজৈর উপজেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠ স্থান অধিকার করেন।

এর আগেও গত বছর অক্টোবর মাসে ঢাকার আরেক সংগঠন বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন এর পক্ষ থেকে তাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।