Mormantik

মনজুর হোসেন, বাংলারশিক্ষা:
আর স্কুলে ফিরবে না সিফাত। ভর্তি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করে পরিবারের সদস্যরা অনেক প্রত্যাশা করে সিফাতকে ভর্তি করেছিলেন মাদারীপুরের সরকারি ইউনাইটেড ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। কিন্তু সেই স্বপ্ন আজ ধূসর আর অন্ধকারে নিমজ্জিত। রোববার সকাল ১১টার দিকে স্কুলে এসে বাড়ি ফেরা হলো না স্কুল ছাত্র সিফাতের। বাড়ি ফেরার পথে অসুস্থ হলে পড়লে হাসপাতালে নেওয়ার আগে মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে তার। সিফাত সিকদার (৮) সরকারি ইউনাইটেড ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল। সিফাত সদর উপজেলার উত্তর খাগছাড়া গ্রামের বাবুল সিকদারের ছেলে। সিফাতের বাবা বাহরাইন প্রবাসী। সিফাতের মৃত্যুতে স্কুল ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

স্থানীয় ও হাসপতাল সূত্রে জানা গেছে, শহরের কলেজ রোড এলাকায় বাসা ভাড়া করে থাকতো সিফাতের পরিবার। এ বাসা থেকে সকালে স্কুলে যায় সিফাত ক্লাস করার জন্য। স্কুল ছুটি হলে বাড়ি ফেরার পথে হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে রাস্তার ওপর পড়ে যায়। এ সময় সিফাতের সাথে থাকা অন্য ছাত্ররা তাকে দ্রুত সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

ইউনাইটেড ইসলামিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম বলেন, কয়েকদিন পূর্বে আমাদের স্কুলের তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি হয় সিফাত। সকালে স্কুলে এসে ক্লাস করেছে। স্কুল ছুটি হওয়ার পর বাড়ি ফেরার পথে সে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে অন্যান্য ছাত্ররা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। সিফাতের মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার মাহাবুব আবির বলেন, স্কুলে পড়ুয়া একটি ছোট ছেলেকে আমাদের কাছে নিয়ে আসলে আমরা চেকআপ করে দেখি হাসপাতালে আনার পূর্বেই সে মারা গেছে।