শিবচর, বাংলারশিক্ষাঃ

করোনা ভাইরাসে দেশের প্রথম লকডাউনকৃত শিবচর উপজেলায় ২০শয্যার বিশেষায়িত করোনা আইসোলেশন কেন্দ্র উদ্বোধন করেছেন জেলা প্রশাসক ড.রহিমা খাতুন। আইসোলেশন কেন্দ্রটিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী ব্যক্তিগত অর্থায়নে বিভিন্ন চিকিৎসা সামগ্রী দিয়েছেন।

এর মধ্যে কেন্দ্রটিতে হাইফ্লোনেজাল কেনোলো থেরাপি সিস্টেম, অক্সিজেনজেনারেটর ,পালস্ অক্সিমিটার, ইনফ্রাডার থার্মোমিটার, অক্সিজেনসিলিন্ডার সংযোজন করা হয়েছে। ফলে করোনা রুগীরা এই আইসোলেশন কেন্দ্র থেকে উন্নত চিকিৎসা পাবেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শিবচরের দক্ষিণ বহেরাতলা হাজী আবুলকাশেম উকিল মা শিশু কল্যান কেন্দ্রকে ২০ শয্যার বিশেষায়িত আইসোলেশন কেন্দ্র হিসেবে উদ্বোধন করা হয়। নিয়োগ দেয়া হয়েছে ২ জন চিকিৎসক, ২ জন নার্সসহ ৭ জন স্বাস্থ্যকর্মী।

১০ দিন পরপর স্বাস্থ্য কর্মীরা পরিবর্তন হয়ে ১৪দিন হোটেলে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। রুগীদের খাবার ব্যবস্থাও রয়েছে। ফলে এই কেন্দ্রটি থেকে করোনা রুগীরা উন্নতচিকিৎসা পাবেন।

উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আ. লতিফ মোল্লার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. সেলিম, ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা আক্তার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ প্রমুখ।

জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেন, বিশেষায়িত এই আইসোলেশন কেন্দ্রে চীফ হুইপ স্যার যে যন্ত্রাংশ সংযোজন করেছেন তা করোনা রুগীদের জন্য অত্যন্ত জরুরী। এই ধরনের সুবিধা অনেক জেলাতেও নেই। কেন্দ্রটির পরিবেশও খুব ভাল।

চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী মুঠোফোনে বলেন, আইসোলেশনকেন্দ্রটি আরো আগেই চালু করার চেষ্টা চালানো হচ্ছিল। কিন্তু ফ্লাইট বিলম্বে যন্ত্রাংশ আসতে দেরি হয়েছে। এর ফলে আশাকরি করোনা রুগীরা উন্নত চিকিৎসা পাবেন। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সাবধানে সতর্কতার সাথে চলতে হবে।