SSC-Logoবাংলারশিক্ষা ন্যাশনাল ডেক্স:
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রথম দিনেই হলে বিভ্রান্তি পড়েছে অনেক পরীক্ষার্থী। সাধারণ ৯টি বোর্ডের অধীনে দেড় ঘণ্টা পরীক্ষা হওয়ার নির্দেশনা থাকলেও এসএসসির প্রথম দিনে পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ের প্রশ্নের সৃজনশীল অংশে সময় উল্লেখ ছিল ২ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট। যদিও শিক্ষার্থীদের দেড় ঘণ্টায় সময়ই পরীক্ষার জন্য দেওয়া হয়েছে।

শিক্ষা বোর্ডগুলো পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘দেড় ঘণ্টা পরীক্ষার নির্দেশনা আসার আগেই প্রশ্ন তৈরি ছিল। তাই সময় নিয়ে প্রশ্নে বিভ্রান্তি। তবে, প্রশ্নে যাই লেখা থাককু পরীক্ষা দেড় ঘণ্টাই অনুষ্ঠিত হবে। এ বিষয়ে সব কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। রুটিনের সঙ্গেও এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া ছিলো। পরবর্তী পরীক্ষাগুলোতেও এমনটিই থাকতে পারে।’

রোববার সকালে এসএসসির পদার্থবিজ্ঞান পরীক্ষা শেষে পরীক্ষার্থীদের অনেকেই বলেন প্রশ্নপত্রের সৃজনশীল অংশে ২ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট উল্লেখ থাকলেও তাদের দেড় ঘণ্টা পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এতে কিছুটা বিভ্রান্তিও সৃষ্টি হয়।

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একজন পরীক্ষার্থীর অভিভাবক বলেন, ‘আমার সন্তানের কেন্দ্র মতিঝিল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। পরীক্ষার প্রশ্নের লেখা ছিলো আড়াই ঘন্টা কিন্তু বাস্তবে ছিলো দেড় ঘন্টা। প্রশ্ন হাতে পাওয়ার পর ছাত্ররা এ বিষয়ে জানতে চাইলে রীতিমতো ধমক দেওয়া হয়।’

‘যেহেতু প্রি-টেস্ট ও টেস্ট ছাড়া হঠাৎ করে এত গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক পরীক্ষায় বসেছে, সেহেতু একটু ঘাবড়ে গিয়েছিলো,’ যোগ করেন অভিভাবক।

এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয় শিক্ষা বোর্ডগুলো কর্তাদের সঙ্গে।

রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এস এম আমিরুল ইসলাম বলেন, ‘পরীক্ষার প্রশ্ন আগে তৈরি করা রাখায় এতে সময় লেখা ছিল আগের নিয়মে। প্রশ্ন ছাপাতে প্রায় দুইমাস সময় লাগে। আমরা আগে থেকেই প্রশ্ন প্রিন্ট করে রাখাসহ পরীক্ষার সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলাম। পরে সিদ্ধান্ত হয় দেড় ঘণ্টা পরীক্ষা নেওয়ার। আগে প্রশ্ন ছাপানোয় এমনটি হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী পরীক্ষায় তিনঘণ্টাও সময় লেখা থাকতে পারে। তবে, প্রশ্নে যাই থাকুক পরীক্ষা দেড় ঘণ্টাই হবে। আমরা কেন্দ্রেগুলোকে ইতোমধ্যে বলেছি এ বিষয়ে পরীক্ষা শুরুর আগেই শিক্ষার্থীদের জানাতে। কেন্দ্রগুলো পরীক্ষা শুরুর আগেই শিক্ষার্থীদের বিষয়টি জানিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী মহোদয় অবগত আছেন। এ বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তির সুযোগ নেই।’
সূত্র: দৈনিকশিক্ষাডটকম।